IQNA

20:48 - August 16, 2019
সংবাদ: 2609085
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি গুরুত্বারোপ করে বলেছেন, মার্কিন কংগ্রেসের দুই মুসলিম নারী সদস্য ইলহান ওমর ও রাশিদা তালিবের ফিলিস্তিনে প্রবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে ইহুদিবাদি ইসরাইল। এই হতাশাজনক সিদ্ধান্তটি ইসরাইলের শাসন ব্যবস্থায় দুর্বলতার কারণেই গ্রহণ করা হয়েছে।

বার্তা সংস্থা ইকনা’র রিপোর্ট: ন্যান্সি পেলোসি জায়নবাদী সরকারকে তার সিদ্ধান্তের বিষয়ে পুনর্বিবেচনার আহ্বান জানিয়েছেন।
ইলহান ওমর ও রাশিদা তালিবের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিল ইসরাইল
মার্কিন কংগ্রেসের দুই মুসলিম নারী সদস্য ইলহান ওমর ও রাশিদা তালিবের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে ইহুদিবাদী ইসরাইল। এর ফলে ইসরাইল সফর করতে পারবেন না মার্কিন কংগ্রেসের এ দুই সদস্য।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আহ্বানের পর গতকাল (বৃহস্পতিবার) ইসরাইল এ নিষেধাজ্ঞার কথা জানায়। আগামী রোববার তাদের ইসরাইল সফরে যাওয়ার কথা ছিল।

ইসরাইলের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে মার্কিন কংগ্রেসের এ দুই সদস্যের সফরের ওপর নিষেধাজ্ঞার কথা জানিয়েছে। দখলদার ইহুদিবাদী সরকারের অনুযায়ী যারা ইসরাইলকে বর্জনের আহ্বান জানান তাদের ইসরাইল সফর করতে দেয়া হয় না।

গতকাল মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারে দেয়া পোস্টে বলেন, “ইলহান ওমর ও রাশিদা তালিবকে ইসরাইল সফরের অনুমতি দেয়া হলে তা হবে ইসরাইলের দুর্বলতা। তারা ইসরাইল ও সব ইহুদিকে ঘৃণা করেন। কোনোভাবেই তাদের মানসিকতার পরিবর্তন ঘটানো যাবে না।”

ট্রাম্পের এই বার্তার পর ইসরাইল নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা জানায়। সোমালি বংশোদ্ভূত ইলহান ওমর এবং ফিলিস্তিনি বংশোদ্ভূত রাশিদা তালিব প্রকাশ্যেই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের অভিবাসনবিরোধী এবং মুসলিমবিরোধী নীতির কঠোর সমালোচক।  iqna

 

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য: